1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নির্মাণের ২ মাস পর থেকেই বন্ধ চট্টগ্রামের একমাত্র এস্কেলেটর ফুটওভার ব্রিজটি বাংলাদেশ ইতিহাস চর্চা পরিষদ’র উদ্যোগে মোহাম্মদ ইমাদ উদ্দীনের সম্মাননা স্মারক লাভ মতবিনিময়ে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চেয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোহাম্মদ শফিউল আলম শিবগঞ্জে রাষ্ট্রীয় মর্যদায় দুই জন বীর মুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন। মেয়েকে হত্যার পর কাঁথা দিয়ে মরদেহ লুকিয়ে রাখেন সৎ মা পটিয়া সনাতনী সমাজের আয়োজনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রতীক দোয়াত কলম’র সমর্থনে মতবিনিময় সভা চন্দনাইশে বরকলে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহমেদ চৌধুরী জুনু’র গনসংযোগ সাংবাদিকদের সাথে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সেলিম উদ্দিনের মতবিনিময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর ৫৬ ধারার প্রয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে.প্রধান অতিথি (সিএমপি কমিশনার) বোয়ালখালীতে সাংবাদিকদের সাথে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর মতবিনিময়

সরকার উৎখাতে কাজ করছে অতি বাম-অতি ডানরা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া একটি গোষ্ঠী আর কিছু বুদ্ধিজীবী অনবরত দেশের বিরুদ্ধে গিবত গাইছে। অতি বাম আর অতি ডান মিলে সরকার উৎখাতে কাজ করছে। তাদের মূল লক্ষ্য সরকার উৎখাত।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে, জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনে কাজ করেছে। দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, বিশ্ব যখন প্রশংসা করছে– তখন কিছু মানুষ সমালোচনা করছে। যে যাই বলুক, শত্রুর মুখে ছাই দিয়ে দেশ এগিয়ে যাবে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে সূচনা বক্তব্যে এ কথা বলেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগকে সব সময় ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করেই চলতে হয়েছে। আওয়ামী লীগ দেশ ও মানুষের ওপর আস্থা রেখেই দেশ চালায়। জনগণের আস্থা-বিশ্বাসই আওয়ামী লীগের মূল শক্তি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য, কিছু রাজনৈতিক দেউলিয়া এবং বুদ্ধি বেঁচে জীবিকা নির্বাহ করেন– এমন তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা অনবরত দেশের বিরুদ্ধে গিবত গাইছেন, অপপ্রচার চালাচ্ছেন। তাদের চোখে কিছুই ভালো লাগে না। বাংলাদেশ তো আর পেছাচ্ছে না, এগিয়ে যাচ্ছে। তাহলে সমস্যাটা কোথায়?

তিনি বলেন, ‘আশ্চর্যের ব্যাপার হচ্ছে, দেশের অতি বাম ও অতি ডান এখন এক হয়ে গেছে। এটা কীভাবে হলো, জানি না। এই দুই মেরু এক হওয়ার পর সারাক্ষণ শুনি, আওয়ামী লীগ সরকারকে উৎখাত করতে হবে। অপরাধটা কী আমাদের?’

বিএনপির কঠোর সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ক্ষমতায় বসে লুটপাট করতে পারছে না বলেই বিএনপি সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনায় নেমেছে। বিএনপি এমন একটি দল, যার কোনো মাথামুণ্ডু নেই। তারা শুধু পারে অনলাইনে নির্দেশনা দিতে। ২৮ অক্টোবর বিএনপি যে অপকর্ম করেছে, মানুষের তা ভুলে যাওয়া উচিত নয়।

তিনি বলেন, ভোট চুরি করে ক্ষমতায় আসা দলের কাছে আজ গণতন্ত্রের কথা শুনতে হয়! যারা ভোট নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন, তারা কেন বুঝছেন না দেশবাসী এই নির্বাচনে ভোট দিতে পেরে খুশি। জনগণের আস্থা আওয়ামী লীগ পেয়েছে। কেননা মানুষ বিশ্বাস করে, আওয়ামী লীগ তাদের উপকার করে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র নিজের চেহারা আয়নায় না দেখে মানবাধিকার নিয়ে সবক দেয়। মার্কিন পুলিশের গায়ে কোনো রাজনৈতিক দল হাত তুললে কী করত সেখানকার পুলিশ? ক’দিন আগে যুদ্ধের বিরোধিতা করায় সাধারণ মানুষের আন্দোলনে কী জুলুমটাই না করল আমেরিকার পুলিশ! এটা তো মানবাধিকার লঙ্ঘন, এর জবাব কী?

প্রচণ্ড তাপদাহে দেশবাসীকে সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, পুরো দক্ষিণ এশিয়ায় গরম ছড়িয়ে পড়ছে। পরিবেশ-প্রতিবেশ রক্ষায় পহেলা আষাঢ় থেকে বৃক্ষরোপণ চালিয়ে যেতে হবে।

টানা ১৫ বছর ক্ষমতায় থেকে দেশ ও জাতির কল্যাণে সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আজ দেশের মানুষের দিন বদল হয়েছে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ গড়া যাবে। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের এক বছর না পেরোতেই টোল হিসেবে দেড় হাজার কোটি টাকা উপার্জন হয়েছে। এটাই তো প্রাপ্তি। বাংলাদেশ যে পারে, এটা তার প্রমাণ।

তিনি বলেন, করোনার মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। স্যাংশন-কাউন্টার স্যাংশন। বিশ্বব্যাপী মুদ্রাস্ফীতি। এসব সমস্যার কারণে শুধু আমরা নই, উন্নত দেশগুলোও হিমশিম খাচ্ছে। তার পরও আমাদের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখেছি।

শেখ হাসিনা বলেন, তৃণমূল মানুষের দিকে লক্ষ্য রেখে আমরা পরিকল্পিতভাবে এগিয়েছি। অনেক জেলা-উপজেলা গৃহহীন ও ভূমিহীনমুক্ত ঘোষণা দিয়েছি। অল্প কিছু বাকি আছে, সেগুলোও শিগগির হয়ে যাবে। দেশের কোনো মানুষ ঠিকানাহীন থাকবে না।

আওয়ামী লীগ সভাপতির সূচনা বক্তব্যের পর তাঁর সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ নেতারা বৈঠকে যোগ দেন। বৈঠকে উপজেলা নির্বাচন ঘিরে দ্বন্দ্ব-কোন্দল নিরসনে দলীয় পদক্ষেপ ও সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হয়। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যুতেও বৈঠকে আলোচনা হয়। এ ছাড়া বিভিন্ন দিবসে দলের কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট