1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাংলাদেশ শেফ ফেডারেশনের সাথে মতবিনিময় বাংলাদেশের শেফগণ দেশে-বিদেশে সুনামের সাথে অবদান রাখছেঃ রাষ্ট্রপতি নবাগত ইউএনওর সাথে বোয়ালখালী প্রেস ক্লাবের সৌজন্য সাক্ষাৎ টেকনাফের কলেজছাত্র মুরাদ হত্যা মামলার আসামি রহিম কারাগারে কক্সবাজার সমুদ্রে গোসল করতে নেমে ডুবে গেলেন ৪ পর্যটক, নিখোঁজ ১  পটিয়া পৌরসভা সড়কের নবনির্মিত ডিভাইডারে বৃক্ষ রোপন উদ্ভোধন করলেন মেয়র আইয়ুব বাবুল। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশন চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সম্মেলন প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত পলাশবাড়ীতে অটো গ্যারেজের নৈশ প্রহরীকে হত্যা করে ৫টি আটো চুরি বোয়ালখালীতে নবনিযুক্ত স্বাস্থ্য সহকারীদের বরণ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চন্দনাইশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল বালক (অনূর্ধ্ব১৭) টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম বিভাগের মা সম্মেলনে বক্তারা : শিশুদের স্মার্ট ফোন ব্যবহার আমাদেরকে মেধা শূন্য জাতিতে পরিণত করবে

শিবগঞ্জের তর্ত্তিপুরে হিন্দু ধর্মবলম্বীদের গঙ্গা স্নান অনুষ্ঠিত।

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ২৮৯ বার পড়া হয়েছে

শরিফুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ প্রতিবছরের মতো এবারো চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার তর্ত্তিপুরে গঙ্গাশ্রম ঘাটে শুক্রবার সনাতন সম্প্রদায়ের গঙ্গাস্নান উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখানে হিন্দু ধর্মালম্বীরা পাপমোচন ও পূর্ণ লাভের আশায় মাকরী সপ্তমী তিথিতে গঙ্গাস্নানে আসেন।

স্থানীয় কয়েকজন বৃদ্ধ মানুষের নিকট থেকে জানা যায়, এই গঙ্গাস্নান অধিকাংশ বছরই মাঘ মাসে অনুষ্ঠিত হয় বলে একে মাঘী বান্নী স্নান বলে। কিন্তু চাঁদের উপর নির্ভর করে কোন কোন বছর ফাল্গুন মাসেও গঙ্গা স্নান অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সহ রাজশাহী অঞ্চলের নাটোর, নওগাঁ এলাকা থেকে হিন্দু ধর্মাবলম্বী পুরুষ-মহিলারা বাস, মিনিবাস, মাইক্রো, সিএনজি, রিক্সাসহ বিভিন্ন প্রকার যানবহন যোগে দূরদূরান্ত থেকে গঙ্গা স্নান অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার জন্য পুর্বদিন থেকেই পৌরণিক জাহ্নুমুনির আশ্রমে আসতে শুরু করে।
শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত তীর্থযাত্রীদের আসা অব্যাহত ছিল। প্রায় মহিলারাই বাড়ি ফেরার সময় নানা ধরনের মাটির পাত্রে সযত্নে গঙ্গার পবিত্র জল নিয়ে যায়। অনুষ্ঠানে আনুমানিক ৮৭ বছর বয়স্কা শ্রীমতী দেবী রানী নামের এক বৃদ্ধার কাছ থেকে জানা যায়, সংগৃহীত এ পবিত্র জল সমগ্র বছর বাড়িতে রেখে বিভিন্ন পূজা পার্বনে ব্যবহার করে থাকি।
তর্ত্তিপুর মহাশ্মশান ও গঙ্গাস্নান কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমল ত্রিবেদী জানান, পৌরাণিক যুগ থেকে উত্তরবঙ্গের অন্যতম র্তীর্থস্থান তর্ত্তিপুর গঙ্গাস্নানে বিভিন্ন এলাকার সনাতন ধর্মালম্বীরা সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত স্নানকার্য সম্পন্ন করেন। এ স্নান করলে মানব জীবনের পাপমোচন ও অকল্যাণ দূর হয়। তিনি আরও বলেন, এ বছর হাজার হাজার ভক্তের সমাগম ঘটেছে।
এদিকে উৎসবকে ঘিরে দিনব্যাপী মেলায় প্রসাধনী, কাঠের আসবাবপত্র, হিন্দু ধর্মের বিভিন্ন উপকরণ, মিষ্টি ও খাবার দোকান, বাঁশ-বেত সামগ্রী ও লোহা লক্কড়ের দোকানসহ পূজা এবং পালাক্রমে কীর্ত্তনের আয়োজন করা হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে আগত হিন্দু মহিলারা বিভিন্ন ধরনের জিনিষপত্র ক্রয় করে থাকেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট