1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাতারে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার ২০২৪ জৈষ্ঠ্যপুরা রমনি মোহন উচ্চ বিদ্যালয়ে  চলছে ক্ষুদে ‘শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা’ কার্যক্রম পটিয়া উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর আনারস মার্কার সমর্থনে জিরি ইউনিয়ন নির্বাচনী প্রধান কার্যালয় উদ্ভোধন ও সভা চন্দনাইশে বৌদ্ধ পরিষদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বাবু নিবু কান্তি বড়ুয়ার উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন পটিয়া বিএনপির প্রস্তুতি সভায় এনামুল হক এনাম কারচুপি ও প্রহসনের নির্বাচনে জনগণের অংশগ্রহণ নেই। শ্রেষ্ঠত্বের স্বাক্ষর রেখে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান গৌরব অর্জনে সারোয়াতলী পূর্ণ চন্দ্র সেন উচ্চ বিদ্যালয় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মাও.সোলাইমান ফারুকীর গণসংযোগ চট্টগ্রামে ভুয়া জন্মসনদ নিয়ে কাউন্সিলর কার্যালয়ে, গ্রেপ্তার ২ রেজাউল করিম রাজার সমর্থনে বোয়ালখালীতে মতাবিনিময় সভা অটোরিকশার ধাক্কায় বোয়ালখালীতে আহত কিশোরের মৃত্যু

রোগ মুক্তির দোয়া।হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী।

  • প্রকাশিত: রবিবার, ১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ২৮৩ বার পড়া হয়েছে

মহান আল্লাহ পাক পবিত্র কুরআন নাজিল করেছেন মানব জাতির কল্যাণে, সর্ব প্রয়োজনে। মানুষের জীবনে এমন কিছুই হবে না, যা কুরআনে নেই, এমন কিছুই ঘটবে না, যার উল্লেখ কুরআনে আসেনি।

এ পবিত্র কুরআনে এমন কিছু আয়াত ও বাণী রয়েছে- যা মানুষের রোগমুক্তি বা শিফা হিসাবেও কাজ করে। তাই মানুষের জন্য কল্যাণকর হবে কুরআনের ওইসব আয়াত দিয়ে মহান আল্লাহর কাছে রোগমুক্তির প্রার্থনা করা, আস্থা ও বিশ্বাসের সঙ্গে তার ওপর আমল করা।

বিসমিল্লাহসহ কুরআনের প্রথম সূরা ‘ফাতিহা’ (আলহামদুলিল্লাহ) পাঠ করা রোগমুক্তির সবচেয়ে উপকারী আমল। তা ছাড়া কুরআনে আরও এমন কিছু আয়াত উল্লেখ রয়েছে-যেগুলো রোগমুক্তির আমল হিসাবে গণ্য করা হয়। তার মধ্যে বহু পাঠ্য দুটি আয়াত বা আমল রয়েছে যা নিম্নে উল্লেখ করা হলো, কেউ যদি রোগমুক্তির উদ্দেশ্যে নিম্নের আয়াতগুলো পড়ে তাহলে আল্লাহ তায়ালা তাকে সব রোগ-বালাই থেকে মুক্তি দেবেন বলে আমরা বিশ্বাস করি।

‘ওয়া ইজা মারিদতু ফা হুয়া ইয়াশফি-নি।’

অর্থ : যখন আমি রোগাক্রান্ত হই, তখন তিনিই (মহান আল্লাহই আমাকে) আরোগ্য দান করেন। (সূরা শুয়ারার-৮০)।

‘ওয়া নুনাজ্জিলু মিনাল কুরআনি মা হুয়া শিফাউও ওয়া রহমাতুল্লিল মু’মিনি-ন।’

অর্থ : আমি (আল্লাহ) কুরআনে এমন কিছু নাজিল করি যা রোগের সুচিকিৎসা এবং মুমিনের জন্য রহমত। (সূরা বনি ইসরাইলের ৮২)।

উপরোক্ত আয়াতগুলো পাঠ করে রোগীর গায়ে ফুঁ দিলে, কিংবা পানিতে ফুঁ দিয়ে সে পানি রোগীকে পান করালে, অথবা রোগী নিজে উপরোক্ত আয়াতগুলো অধিক পরিমাণে পড়লে মহান আল্লাহ তাকে সব ধরনের রোগ-বালাই থেকে মুক্তি দেবেন। শিফায়ে কমেলা দান করবেন। আমিন।

মহান আল্লাহ পাক যেন আমাদেরকে উপরোক্ত আলোচনা গুলো আমল করার তাওফিক দান করেন আমীন।

লেখক : বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ লেখক ও কলামিস্ট হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী ছাহেব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট