1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
চন্দনাইশে পুরাতন কলেজ গেইট এলাকায় চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন আহমেদের নির্বাচনী অফিস শুভ উদ্বোধন পটিয়া উপজেলার নির্বাচনে আ”লীগ দুটি ভাগে বিভক্ত দু”প্রতীকে ভোটের মাঠে মুখোমুখি! সংঘর্ষে আশংকায় ভোটাররা। চন্দনাইশে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মাওলানা সোলাইমান ফারুকী’র গণসংযোগ নির্মাণের ২ মাস পর থেকেই বন্ধ চট্টগ্রামের একমাত্র এস্কেলেটর ফুটওভার ব্রিজটি বাংলাদেশ ইতিহাস চর্চা পরিষদ’র উদ্যোগে মোহাম্মদ ইমাদ উদ্দীনের সম্মাননা স্মারক লাভ মতবিনিময়ে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চেয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোহাম্মদ শফিউল আলম শিবগঞ্জে রাষ্ট্রীয় মর্যদায় দুই জন বীর মুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন। মেয়েকে হত্যার পর কাঁথা দিয়ে মরদেহ লুকিয়ে রাখেন সৎ মা পটিয়া সনাতনী সমাজের আয়োজনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রতীক দোয়াত কলম’র সমর্থনে মতবিনিময় সভা চন্দনাইশে বরকলে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহমেদ চৌধুরী জুনু’র গনসংযোগ

বিএসএফের গুলিতে নিহত শিবগঞ্জের বিজিবি সদস্যের দাফন সম্পন্ন।

  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ১৪৯ বার পড়া হয়েছে

শরিফুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

২২ জানুয়ারি (সোমবার) ভোরে যশোরের শার্শা উপজেলার ধান্যখোলা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)’র গুলিতে নিহত বিজিবি সদস্য মোহাম্মদ রইসউদ্দীনের মরদেহ নিজ গ্রাম চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকশা ইউনিয়নের সাহাপাড়া এলাকার শ্যামপুর গ্রামে পৌঁছার পর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

২৪ জানুয়ারি (বুধবার) বিকেল ৪টার দিকে যশোর থেকে বিজিবির একটি দল হেলিকপ্টারযোগে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা স্টেডিয়ামে রইসউদ্দীনের মরদেহ নিয়ে অবতরণ করে। পরে বিজিবি মরদেহটি অ্যাম্বুলেন্সে করে নিহতের গ্রামের বাড়ি উপজেলার মনাকশা ইউনিয়নের সাহাপাড়া এলাকার শ্যামপুরে গ্রামে নিয়ে যায়।
এ সময় বিজিবির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ ব্যাটালিয়নের (৫৩ বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল নাহিদ হোসেন এবং রহনপুর ব্যাটালিয়নের (৫৯ বিজিবি) উপঅধিনায়ক মেজর ইমরুল কায়েস, সহকারী পরিচালক মো. জামাল উদ্দিনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।
পৈত্রিক ভিটায় মরদেহ পৌঁছার পর স্বামীর মরদেহ নিয়ে বিলাপ করছিলেন স্ত্রী নাসরিন বেগম। আর দাদা ও নানার কোলে ২ বছর বয়সী শিশু রাইশা খাতুন ও ৪ মাসের হাসান আলী এদিক ওদিক চেয়ে চেয়ে দেখছিল। কি হয়েছে কেন সব কাঁদছে তা অনুধাবন করতে না পারলেও কিছু একটা যে হয়েছে, তা বুঝতে অসুবিধা হয়নি এই দুই অবোধ শিশুর। বিজিবির পতাকা দিয়ে ঢাকা কফিনের মধ্যে শুইয়ে রাখা তাদের পিতার মরদেহ। বাচ্চা দুটি ফ্যাল ফ্যাল করে চেয়ে চেয়ে দেখছে। আর বুকফাটা আর্তনাদ নিহত রইস উদ্দীনের মা রুমালি বেগমের।
মরদেহ বাড়িতে আসার খবর পেয়ে স্থানীয়রা মৃত রইসউদ্দীনকে একনজর দেখতে ভিড় করেন। পরিবার, স্বজন আর গ্রামবাসীর কান্না আর আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে আকাশ বাতাস। বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে শ্যামপুর নুরেস মোড় এলাকায় আল আরাবিয়্যাহ মাদ্রাসায় জানাজা শেষে শ্যামপুর ভবানীপুর কবরস্থানে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।
যশোরের বেনাপোল ধান্যখোলা সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত বিজিবি সদস্য রইসউদ্দীনের মরদেহ বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায়
শার্শার শিকারপুর সীমান্তের মুক্তিযোদ্ধা খামারপাড়া ও ভারতের গাঙ্গুলিয়া সীমান্তের ২৮ নম্বর মেইন পিলার দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মরদেহ হস্তান্তর করে করে বিএসএফ।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন যশোর ৪৯ বিজিবির সিও জামিল আহম্মেদ ও ভারতীয় বিএসএফের ১০৭ ব্যাটালিয়নের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা।
এদিকে রইসউদ্দীনের গ্রামবাসী জানায়, কৃষক কামরুজ্জামানের পাঁচ সন্তানের মধ্যে তিন ছেলে ও দুই মেয়ে। ৩ ছেলের মধ্যে সব ছোট রইসউদ্দীন ছিলেন এলাকার প্রিয় মানুষ। বড় ছেলে সেনাবাহিনীতে এবং মেজ ছেলে বিজিবিতে কর্মরত। নিহত রইসউদ্দীন নিজের সংসারের জন্য তেমন কিছু করতে পারেননি। পরোপকার করতে ভালবাসতেন রইসউদ্দীন বলেও জানান গ্রামবাসী।
নিহতের মা রুমালি বেগম তার সন্তানের পরিবারের জন্য একটি আবাসস্থল এবং রেখে যাওয়া ২ সন্তানের দায়িত্ব নেয়ার দাবি করেন সরকারের প্রতি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট