1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম, ভোটগ্রহন কাল দুবাইয়ে পুরস্কৃত হলেন ৫১ বাংলাদেশি সিআইপি প্রবীণ আ’লীগ নেতা মোহাম্মদ নুর আলমের ইন্তেকাল পটিয়ায় বিভিন্ন অভিযোগে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন এর সংবাদ সম্মেলন চাঁপাইনবাবগঞ্জে শুল্ক ফাঁকি দেয়া ১৫৬টি স্মার্ট মোবাইল ফোন জব্দ, আটক এক। প্রবল ঘূর্ণিঝড় রেমাল ১৮০ কিলোমিটারের মধ্যে। গার্মেন্টসে ঝুট ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সরকারদলীয় দুই পক্ষের সংঘর্ষ বোয়ালখালীতে জাতীয় ভিটামিন এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিত করণ সভা অনুষ্ঠিত মৎস্যসম্পদ সংরক্ষণে  জেলেদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে আগেই বন্ধ করে দেওয়া হলো বঙ্গবন্ধু টানেল’

বদরপুর শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ সহ নানান অভিযোগ।

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৩
  • ৪০২ বার পড়া হয়েছে

বরিশাল ব্যুরো।

পটুয়াখালী সদর উপজেলার ২ নং বদরপুর শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে।

অভিযোগকারী অত্র বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন নৈশপ্রহরী মোঃ মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, সাবেক ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি লুৎফর রহমান মানিক মিয়া সহ ১১ জন সদস্যের সর্বসম্মতিক্রমে গত ০৫/০২/২০ ইং তারিখ নৈশপ্রহরী পদে খন্ডকালীন নিয়োগ প্রধান করা হয়। অতঃপর সরকারি বিধি মোতাবেক নিয়োগ পত্রের আশ্বাস দেয়া হয়।সেমতে চলতি মাস পর্যন্ত বিনা বেতনে বিদ্যালয়ে নৈশপ্রহরী হিসেবে কাজ করে আসছেন। হঠাৎ গত ০২/০৫/২৩ ইং তারিখ জানতে পারে নৈশপ্রহরী পদে লোক নিয়োগ করা হবে। পরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বর্তমান ম্যানেজিং কমিটির সাথে যোগাযোগ করলে তাকে নিয়োগ দেয়া হবে না বলে জানায়। এছাড়াও তার কাছে ৬ লক্ষ টাকা দাবি করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিরোধ লাল বৈদ্য। তিনি আরও বলেন, খোঁজ নিয়ে জানতে পারি ১৩/০৪/২৩ ইং তারিখ স্থানীয় দৈনিক পটুয়াখালী নামের পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে যা বিদ্যালয়ের কোন নোটিশ বোর্ড না দিয়ে গোপন রাখা হয়েছে। নিয়োগ সম্পর্কে সার্কুলার না দিয়ে পেপার বিজ্ঞপ্তি গোপন রেখে ক্ষমতার অপব্যবহার ও মোটা অংকের অর্থ গ্রহন করে বিদ্যালয়ে অবৈধভাবে নৈশপ্রহরী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। অবৈধ নিয়োগ বন্ধ ও সু-বিচারের জন্য পটুয়াখালী বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে গত ০৩/০৫/২৩ ইং তারিখ মামলা দায়ের করেন বর্তমান খন্ডকালীন নৈশপ্রহরী মোঃ মিজানুর রহমান। মামলা নং-২৬৫/২৩.

মামলায় বিবাদী প্রধান শিক্ষক নিরোধ লাল বৈদ্য ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাইদুর রহমান মুক্তা মিয়াকে বিজ্ঞ আদালত ৭ কার্যদিবসের মধ্যে কারন দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন। এতে বিবাদীগন আদালতে এসে কারন দর্শানোর জন্য সময় প্রার্থনা করেন। নিয়োগ স্থগিত আদেশের জন্য বিজ্ঞ আদালতে প্রার্থনা করেন বাদী পক্ষ। এমতাবস্থায় জানাগেছে গত ০৭/০৭/২৩ ইং তারিখ চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়।

এবিষয়ে সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আকমল হোসেন খাঁন বলেন, বিধিমোবেক সকল নিয়মকানুন মেনে গত শুক্রবার ৭’জুলাই পটুয়াখালী সরকারি জুবলি উচ্চ বিদ্যালয়ে বসে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। আমি জেলা শিক্ষা অফিসারের নির্দেশনা পেয়েছি কমিটির প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র পেয়ে নিয়োগ পরীক্ষায় উপস্থিত ছিলাম। সেখানে নিয়োগে আবেদনকারীরা উপস্থিত ছিলেন। তবে মামলার বিষয়ে আমি অবগত না এব্যাপারে বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান বিষয়টি আমার জানা নেই বলে জানান।

নিয়োগ বোর্ডে উপস্থিত সরকারি জুবলি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রুহুল আমিন জানান, মামলার বিষয়ে আদালতের নোটিশ থাকলে সেটা জেনেশুনে নিয়োগ প্রদান করার কোন সুযোগ নেই। তবে বিষয়টি আমার জানা নেই নোটিশ কপি যারা পেয়েছে তারাও আমাকে কিছু বলেননি।এরকম হলে কার্যক্রম স্থগিত থাকবে বলে জানান।

এব্যাপারে বদরপুর শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিরোধ লাল বৈদ্য এর কাছে জানতে চাইলে তাকে বিদ্যালয়ে উপস্থিত পাওয়া যায়নি এমনকি তার মুঠোফোনে একাধিকবার কল করলেও রিসিভ করেননি।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাইদুর রহমান মুক্তা মিয়া অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা যথাযথ নিয়ম অনুযায়ী পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছি।মামলার বিবাদীকে নিয়োগে আবেদন করতে বলেছি তার কাগজপত্র নেই তাই সে আবেদন করেনি। সে কার কথায় কিশের জন্য আদালতে মামলা করেছে জানিনা। তবে এর পেছনে কোন ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা রয়েছে। আমরা মামলায় বিবাদী হয়েছি বাদী স্থগিত আদেশ চেয়েছে সেটা এখনও কার্যকর হয়নি। এক্ষেত্রে আমাদের নিয়োগ কাজ সম্পন্ন করার কোন বাঁধা নেই। আগামী ১৭’তারিখ শুনানির দিন আমরা আদালতে জবাব দিবো।

অভিযোগের সত্যতা জানতে সরেজমিনে বদরপুর শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ এর বিষয়টি অত্র বিদ্যালয়ের কোন শিক্ষকের জানা নেই বলে জানান উপস্থিত শিক্ষকবৃন্দ। তারা শুনেছে মামলা হয়েছে এর বেশি কিছু জানেনা।তনে বিগত দিনে মিজানুর রহমান কে নৈশপ্রহরী পদে খন্ডকালীন নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে এখনও চাকরি করছে বলে জানান নিয়োকালীন সময়ে ম্যানেজিং কমিটির দুই শিক্ষক। তবে তাকে বাতিল করা কিংবা নতুন নিয়োগের বিষয়ে দিন তারিখ কোন কিছু জানা নেই।

এবিষয়ে আইনগত কোন বাঁধা রয়েছে কিনা জানতে বিজ্ঞ আইনজীবীর নিকট জানতে চাইলে, তিনি বলেন, যেহেতু নিয়োগের বিষয়ে বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। বাদী পক্ষ বিজ্ঞ আদালতের কাছে নিয়োগ স্থগিত আদেশের প্রার্থনা জানিয়েছেন এবং বিবাদী কারন দর্শানোর জন্য সময় প্রার্থনা করেন। এছাড়া মামলায় আগামী ১৭’জুলাই শুনানি তারিখ ধার্য করা হয়েছে এর মধ্যে নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করা কখনোই আইনগতভাবে বৈধ নয় বলে জানান। তিনি আরও বলেন কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারতেন যদি মামলার বিষয়ে তাদের অবগত না থাকতেন। আগামী শুনানি তারিখে বিজ্ঞ আদালতে বিষয়টি উপস্থাপনের পর যে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন সেটাই সঠিক হবে বলে জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট