1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১০:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বৃষ্টিই তুলে দিলেন সুপার এইটে, যুক্তরাষ্ট্রকে পাকিস্তানের বিদায়। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে পটিয়ার ধলঘাট যুদ্ধ দিবসের আলোচনা সভা টাকা উড়ানো সহজ উপার্জন নয়! শিল্পপতি লোহানী সাহেবের ছেলের বাস্তব জীবনের গল্প আবারো চালু হলো চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ‘স্পেশাল ট্রেন’ এম এ রহিম দ্বিতীয় বারের মতো আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয় কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সদস্য মনোনীত। ভেজাল খাদ্য প্রতিরোধে অন দ্য স্পট স্ক্রিনিং, মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে : কক্সবাজারে খাদ্যমন্ত্রী সোনাইমুড়ীতে দুর্গন্ধের সূত্রে মিল্ল মান্নানের লাশ। আপনারা আমার উপর ভরসা রাখুন ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ী-ঘর, বেড়িবাঁধ, রাস্তা ঘাট, পুল, ব্রীজ দ্রুত মেরামত করে দেবাে’ -প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা কলাপাড়ায় ব্রিজ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে

দেশে ফেরা হলোনা প্রবাসী ছালেকের

  • প্রকাশিত: রবিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ১৮০ বার পড়া হয়েছে

বোয়ালখালী(চট্টগ্রাম)প্রতিনিধি:

সৌদি আরবে বোয়ালখালী পোপাদিয়া  গ্রামের মো. আবু ছালেক (৪০) নামের এক প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার (২০ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় ভোর ৫ টায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

মো: আবু ছালেক চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার পোপাদিয়া  ইউনিয়নের শাহ জামালের বাড়ীর মৃত মোহাম্মদ আবুল কালামের ছেলে। সে দু’বছর যাবৎ সৌদিতে প্রবাস জীবন পার করছেন। তার এক মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। ২৫ জানুয়ারি দেশে আসার কথা ছিল তাঁর।

মো. আবু ছালেকের মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সঙ্গে থাকা প্রবাসী নাছের। তিনি বলেন, ‘শনিবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁকে সৌদি আরবের একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। দেশে তাঁর মরদেহ পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলাম মুন্না জানান, ‘মো. আবু ছালেক নামে পোপাদিয়া গ্রামের একজন রেমিট্যান্স যোদ্ধাকে হারিয়েছি। তাঁর পরিবারের সাথে আলাপ আলোচনা চলছে তাঁর মরদেহ দেশে আনার জন্য যতটুকু সহযোগিতা প্রয়োজন তা করবো বলে আস্বস্ত করেছি।’

ছালেকের ভাতিজা রবিউল হোসেন সানি জানান , ‘গত আট দিন আগে আমার চাচা আবু ছালেক ওমরা হজ্জ শেষ করে নিজ কর্মস্থল সৌদিয়া তাবুক নামক স্থানে কর্ম শুরু করেছেন।মৃত্যুর পূর্বেও পরিবারের সবার সাথে স্বাভাবিক কথা বলেছেন। হঠাৎ কলেস্টেরল বৃদ্ধি পেয়ে এভাবে মারা যাবে কোনোভাবে মনকে মানাতে পারছি না।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট