1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আনন্দ-উৎসবে চবি চকরিয়া-পেকুয়া ছাত্র ফোরাম’র নবীনদের বরণ ও প্রবীণদের বিদায় উদযাপন পটিয়ায় প্রথম বারে মত বইপ্রেমী”র একুশে বইমেলা উদ্বোধন শুরু আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের আলোচনা সভা সাংবাদিকতার যোগ্যতা নির্ধারণের দাবির সঙ্গে সরকার একমত: তথ্য প্রতিমন্ত্রী এলাকার উন্নয়নে প্রত্যেক সংসদ সদস্যরা পাবেন ২০ কোটি টাকা প্রতিবেশীদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে ‘সামুদ্রিক সম্পদ’ আহরণ করুন: প্রধানমন্ত্রী নাব্যতা সংকটে কর্ণফুলী নদীতে ফেরী চলাচলে চরম দুর্ভোগে চালক ও যাত্রীরা সবকিছুর আগে আমাদের সবাইকে নিজের মাতৃভাষার চর্চার ওপর গুরুত্ব দিতে হবে -এ কে এম মকছুদ আহমেদ হাজী আবদুল বাতেন সওদাগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মা সমাবেশ অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

দেশে ফেরা হলোনা প্রবাসী ছালেকের

  • প্রকাশিত: রবিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৮৮ বার পড়া হয়েছে

বোয়ালখালী(চট্টগ্রাম)প্রতিনিধি:

সৌদি আরবে বোয়ালখালী পোপাদিয়া  গ্রামের মো. আবু ছালেক (৪০) নামের এক প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার (২০ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় ভোর ৫ টায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

মো: আবু ছালেক চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার পোপাদিয়া  ইউনিয়নের শাহ জামালের বাড়ীর মৃত মোহাম্মদ আবুল কালামের ছেলে। সে দু’বছর যাবৎ সৌদিতে প্রবাস জীবন পার করছেন। তার এক মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। ২৫ জানুয়ারি দেশে আসার কথা ছিল তাঁর।

মো. আবু ছালেকের মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সঙ্গে থাকা প্রবাসী নাছের। তিনি বলেন, ‘শনিবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁকে সৌদি আরবের একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। দেশে তাঁর মরদেহ পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলাম মুন্না জানান, ‘মো. আবু ছালেক নামে পোপাদিয়া গ্রামের একজন রেমিট্যান্স যোদ্ধাকে হারিয়েছি। তাঁর পরিবারের সাথে আলাপ আলোচনা চলছে তাঁর মরদেহ দেশে আনার জন্য যতটুকু সহযোগিতা প্রয়োজন তা করবো বলে আস্বস্ত করেছি।’

ছালেকের ভাতিজা রবিউল হোসেন সানি জানান , ‘গত আট দিন আগে আমার চাচা আবু ছালেক ওমরা হজ্জ শেষ করে নিজ কর্মস্থল সৌদিয়া তাবুক নামক স্থানে কর্ম শুরু করেছেন।মৃত্যুর পূর্বেও পরিবারের সবার সাথে স্বাভাবিক কথা বলেছেন। হঠাৎ কলেস্টেরল বৃদ্ধি পেয়ে এভাবে মারা যাবে কোনোভাবে মনকে মানাতে পারছি না।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট