1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৩:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রবীণ আ’লীগ নেতা মোহাম্মদ নুর আলমের ইন্তেকাল পটিয়ায় বিভিন্ন অভিযোগে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন এর সংবাদ সম্মেলন চাঁপাইনবাবগঞ্জে শুল্ক ফাঁকি দেয়া ১৫৬টি স্মার্ট মোবাইল ফোন জব্দ, আটক এক। প্রবল ঘূর্ণিঝড় রেমাল ১৮০ কিলোমিটারের মধ্যে। গার্মেন্টসে ঝুট ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সরকারদলীয় দুই পক্ষের সংঘর্ষ বোয়ালখালীতে জাতীয় ভিটামিন এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিত করণ সভা অনুষ্ঠিত মৎস্যসম্পদ সংরক্ষণে  জেলেদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে আগেই বন্ধ করে দেওয়া হলো বঙ্গবন্ধু টানেল’ চন্দনাইশ উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে গ্রেফতারের নির্দেশ চন্দনাইশে ধোপাছড়িতে বৈদ্যুতিক বাল্ব প্রতীকের গনসংযোগ

চট্টগ্রামে আলোর অভিসারী গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান সম্পন্ন।

  • প্রকাশিত: শনিবার, ২৯ জুলাই, ২০২৩
  • ১৯৮ বার পড়া হয়েছে

রতন বড়ুয়া, চট্টগ্রাম।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. নুরুল আমিন বলেছেন- বরেণ্য শিক্ষাবিদ বিমল কান্তি বড়ুয়া শৈশব থেকে আর্থিক দৈন্যতার মধ্যে দিয়ে বড় হলেও শিক্ষাপাঠ থেকে কখনো নিজেকে বিচ্যুত করেননি, এমনকি একজন সাধারণ শিক্ষক হয়েও শিক্ষা ও মানবসেবা কিভাবে করতে হয় তা তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন। অর্থের টানাপোড়েন থাকলেও তিনি বিপথে পরিচালিত হননি। তিনি আজীবন শিক্ষা সংস্কারক হিসেবে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। বর্তমান সমাজব্যবস্থায় তাঁর জীবন অনুসরণ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। আমার সৌভাগ্য যে, এমন একজন মহান শিক্ষাগুরুকে আমি সরাসরি স্যার হিসেবে পেয়েছিলাম।

তিনি ২৮ জুলাই শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে অনুষ্ঠিত লেখক-সাংবাদিক বিপ্লব বড়ুয়া সম্পাদিত জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষকের স্বর্ণপদক প্রাপ্ত (মাধ্যমিক শাখা) দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদ বিমল কান্তি বড়ুয়া’র জীবন আখ্যান ”আলোর অভিসারী” গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে উপরোক্ত মন্তব্য করেন। প্রধান অতিথি আরো বলেন- শিক্ষকতা জীবনের এক দীর্ঘ সময় প্রায় ২৮ বছর দেশের নন্দিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলে শিক্ষকতা করেছেন। পরবর্তিতে খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক থাকাবস্থায় ১৯৯৫ সালে দেশ সেরা প্রধান শিক্ষকের পদক লাভ করেন।

বিশিষ্ট রাষ্ট্র বিজ্ঞানী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক শিক্ষক ও আলোর অভিসারী গ্রন্থ মোড়ক উন্মোচন পরিষদের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. বেণু প্রসাদ বড়ুয়ার সভাপতিত্বে মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করবেন ইউএসটিসির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন যথাক্রমে রাঙামাটি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর তুষার কান্তি বড়ুয়া, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. হাফিজুল ইসলাম, বাংলা একাডেমির পুরস্কার প্রাপ্ত লেখক, বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক, সাংবাদিক বিশ্বজিৎ চৌধুরী, পটিয়া করল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা, বিশিষ্ট সামাজিক ব্যক্তিত্ব লায়ন ডা. মৃদুল বড়ুয়া চৌধুরী, সীতাকু-লতিফা সিদ্দীকি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শিমুল বড়ুয়া, চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মোড়ক উন্মোচন পরিষদের সদস্য সচিব চট্টগ্রাম ওয়াসার বোর্ড সদস্য সিদ্ধার্থ বড়ুয়া এফসিএ। অনুভূত প্রকাশ করেন শিক্ষবিদ বিমল কান্তি বড়ুয়া ও গ্রন্থের সম্পাদক লেখক-সাংবাদিক বিপ্লব বড়ুয়া।
শিক্ষাবিদ বিমল কান্তি বড়ুয়া বলেন, আলোর অভিসারী গ্রন্থে আমার জীবনের ঘটনাবলী চিত্রিত হয়েছে। এর জন্য আমার প্রিয় ভাজন সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। বইটি প্রকাশের মধ্যে দিয়ে সে আমাকে নতুনভাবে জন্ম দিয়েছে। প্রজন্মের জন্য একটি ইতিহাস রেখে যেতে পেরে আমি আজ আনন্দিত। উদ্বোধক প্রফেসর ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া বলেন, আজীবন সুদক্ষ শিক্ষক বিমল কান্তি বড়ুয়া একজন পুরিপূর্ণ বিদ্বান। মেধাবী পেশাজীবি এবং ছাত্রবান্ধব সুশীল সমাজের আইকন। কথাসাহিত্যিক বিশ্বজিৎ চৌধুরী বলেন- ছাত্রদেরকে সন্তান স্নেহে আদর-শাসনের মধ্যে দিয়ে মানুষ করেছেন তাঁর ছাত্র হিসেবে আমি সত্যিই গর্বিত। কলেজিয়েট স্কুলের মতো সর্বার্থে নামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একজন শিক্ষক আমাদের পাড়ায় থাকেন, এটা ছিল পুরো এলাকাবাসীর গর্ব। আলোর অভিসারীর মধ্যে দিয়ে স্যারকে নতুনভাবে জানার সুযোগ হয়েছে।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন- প্রফেসর ডা. আবু তসলিম, প্রফেসর ডা. সৌমেন সরকার। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কবি অধ্যাপক সঞ্জীব বড়ুয়া। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ বেতার ও টিভি উপস্থাপক বিশিষ্ট আবৃত্তিকার প্রবীর পাল, উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী পাপড়ি মুৎসুদ্দী। নৃত্য পরিবেশন করেন শিল্পী অনন্য বড়ুয়া’র প্রাপণ একাডেমীর শিক্ষার্থি বৃন্দ। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন- সুপ্রকাশ বড়ুয়া সুকু, নৃত্যশিল্পী অনন‍্য বড়ুয়া,কীর্তনীয়া নয়ন বড়ুয়া, বাবু বড়ুয়া, সজীব বড়ুয়া সুমু, শুভ বড়ুয়া, দিগন্ত বড়ুয়া, উৎস বড়ুয়া।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট