1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৩:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
চন্দনাইশে পুরাতন কলেজ গেইট এলাকায় চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন আহমেদের নির্বাচনী অফিস শুভ উদ্বোধন পটিয়া উপজেলার নির্বাচনে আ”লীগ দুটি ভাগে বিভক্ত দু”প্রতীকে ভোটের মাঠে মুখোমুখি! সংঘর্ষে আশংকায় ভোটাররা। চন্দনাইশে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মাওলানা সোলাইমান ফারুকী’র গণসংযোগ নির্মাণের ২ মাস পর থেকেই বন্ধ চট্টগ্রামের একমাত্র এস্কেলেটর ফুটওভার ব্রিজটি বাংলাদেশ ইতিহাস চর্চা পরিষদ’র উদ্যোগে মোহাম্মদ ইমাদ উদ্দীনের সম্মাননা স্মারক লাভ মতবিনিময়ে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চেয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোহাম্মদ শফিউল আলম শিবগঞ্জে রাষ্ট্রীয় মর্যদায় দুই জন বীর মুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন। মেয়েকে হত্যার পর কাঁথা দিয়ে মরদেহ লুকিয়ে রাখেন সৎ মা পটিয়া সনাতনী সমাজের আয়োজনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রতীক দোয়াত কলম’র সমর্থনে মতবিনিময় সভা চন্দনাইশে বরকলে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহমেদ চৌধুরী জুনু’র গনসংযোগ

গুইমারায় পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২৬ বছর পুর্তি উদযাপন

  • প্রকাশিত: শনিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ২০৮ বার পড়া হয়েছে

জেলা প্রতিনিধি, খাগাড়ছড়ি :

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়ির গুইমারা রিজিয়নের আয়োজনে গুইমারায় পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২৬তম বর্ষপূর্তি উদযাপিত হয়েছে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) সকালের দিকে গুইমারা উপজেলার শহীদ লে: মুশফিক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. কামাল মামুন। নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শুরু হয়ে গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে শেষ হয়।

পরে গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. কামাল মামুন। গুইমারা সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল এস এম আবুল এহসান, সিন্দুকছড়ি জোন অধিনায়ক লে: কর্নেল সৈয়দ পারভেজ মোস্তফা, মাটিরাঙ্গা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ কামাল হোসেন মজুমদার, গুইমারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেমং মারমা ও রামগড় পৌরসভার মেয়র মো: রফিকুল আলম কামাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

শান্তি চুক্তির ধারাবাহিক সফলতার কথা উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, পার্বত্য চুক্তির আগে পাহাড়ে শুধুই ছিল আতঙ্ক। এখন সেখানে চোখে পড়ে দৃশ্যমান উন্নয়ন আর উন্নয়ণ। বন্ধ হয়েছে সহিংসতা, সংঘাত। বেড়েছে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধন। বক্তারা শান্তি, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে সকলের প্রতি আহবান জানান।

এসময় সামরিক কর্মকর্তাগ, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

পাহাড়ে প্রায় দুই দশকের সংঘাত বন্ধে ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর সরকার ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির মধ্যে চুক্তি সই হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৮ সালের ১০ ফেব্রæয়ারি খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর হাতে গেরিলা নেতা সন্তু লারমার অস্ত্র সমর্পণের মধ্য দিয়ে জনসংহতি সমিতির সদস্যরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট