1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩, ১২:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেম হত্যা মামলায় পৌর মেয়র মোখলেশুর কারাগারে। সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে পূর্বাশার আলো’র মৌসুমি ফল বিতরণ খাগড়াছড়ির শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ মাটিরাঙ্গা থানার ওসি মো. জাকারিয়া পটিয়ায় প্রতারণা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার  চকরিয়া হস্তশিল্প নারী উদ্যোক্তারা আঞ্চলিক গন্ডি পেরিয়ে একদিন সারাদেশে সমাদৃত হবে দূমকিতে আশা এনজিও সদস্যের চেক ছিড়ে ফেলার অভিযোগ। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে নিহত সেনা সদস্যের পরিবারকে গৃহ হস্তান্তর। ৮ জুন চট্টগ্রাম মহানগরে অটোরিকশা,টেম্পো‘র কর্ম বিরতি ঘোষণা। সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত পটিয়ার ছাত্রলীগ নেতা মানিক’র ছোট বোনকে দেখতে হাসপাতালে উপস্থিত হুইপ সামশুল হক চৌধুরী  জাতীয় যুব সংহতি কেন্দ্রীয় প্রচার উপ-কমিটির সদস্য হলেন ইমরান হোসেন মুন্না

কেরামতি চাই না, ভোটের ফলাফল স্থগিত করে পুনরায় নির্বাচন করার দাবি- সামাদ

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৫৪ বার পড়া হয়েছে

বোয়ালখালী প্রতিনিধি:

ভোটের ফলাফল স্থগিত করার দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম- ৮ আসনের উপনির্বাচনে ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী স.উ.ম আবদুস সামাদ।

বৃহস্পতিবার(২৭ এপ্রিল) বিকেল ৩টার সময় বোয়ালখালী উপজেলার একটি রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ দাবি জানান।

তিনি বলেন, সকাল থেকে ভোটাররা কেন্দ্রে গেলেও বুথে অবাঞ্ছিত লোকের উপস্থিতির কারণে ভোট দিতে পারেননি। বোয়ালখালীর আমুচিয়া, পোপাদিয়া, পূর্ব খিতাপচরে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে মোমবাতি প্রতীকের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সারোয়াতলীতে তাজুল নামের এক ব্যক্তি মোমবাতিতে ভোট দেওয়ায় তাকে মারধরের চেষ্টা চালানো হয়েছে।

সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সংসদীয় এলাকার ভোট কেন্দ্রগুলো পর্যবেক্ষণ করে ৬ দফায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দেওয়া হয়। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তা রিটার্নিং কর্মকর্তা গ্রহণ করেন। কিন্তু কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়নি।

রিটার্নিং কর্মকর্তা এর মাধ্যমে নির্বাচন কার্যক্রমকে কুলষিত করেছেন। সরকারকে বিতর্কিত করেছেন।

আবদুস সামাদ অভিযোগ করে বলেন, ভোটের আগেরদিন রাতে এক প্রার্থীর নির্বাচনী কাজে জড়িত পাতি নেতাদের ভোজন বিলাসে মেতেছিলেন প্রিজাইডিং অফিসারসহ পোলিং অফিসাররা। যা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। এটা আইনের পরিপন্থী। শুধুমাত্র ৫-১০ শতাংশ প্রিজাইডিং অফিসার এতে যোগ দেননি।

তিনি বলেন, নগরীতে ২ থেকে ৩ শতাংশ ভোট পড়েছে এবং বোয়ালখালীতে ৫ থেকে ৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। এর বেশি দেখানো মানে কেরামতি হয়েছে। আমরা কেরামতি চাই না। ভোটের ফলাফল স্থগিত করে পুনরায় নির্বাচন করার দাবি জানাচ্ছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ও উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের নেতৃবৃন্দরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট