1. info@www.dainikdeshbarta.com : bissho sangbad Online : bissho sangbad Online
  2. info@www.dainikdeshbarta.com : Dainik Desh Barta :
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সোনাইমুড়ীর গজারিয়া জনকল্যাণ সংস্থার ঈদ পুনর্মিলনী ও আলোচণা সভা অনুষ্ঠিত শিবগঞ্জে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত। পটিয়ায় এস.এ.নুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্ভোধন করেন বিচারপতি-শেখ আরিফ হাসান সোনাইমুড়ী থানার আয়োজনে সাংবাদিকদের মধ্যাহ্নভোজ সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত শিবগঞ্জে অগ্নিকান্ডে ৪টি গরুর মৃত্যু, প্রায় ৭ লাখ টাকার ক্ষতি। চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত প্যানেল চেয়ারম্যান ফারহানা আফরিন  পটিয়ায় সংবর্ধিত  বেতছড়ি জামে মসজিদের খতিবের বিদায়ী সংবর্ধনা। গ্রীন মোহনগঞ্জ” এর সার্বিক সফলতা ও পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন জনাব সাজ্জাদুল হাসান এমপি। চাঁপাইনবাবগঞ্জে শান্তিপূর্ণভাবে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত।

কেরামতি চাই না, ভোটের ফলাফল স্থগিত করে পুনরায় নির্বাচন করার দাবি- সামাদ

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২২৮ বার পড়া হয়েছে

বোয়ালখালী প্রতিনিধি:

ভোটের ফলাফল স্থগিত করার দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম- ৮ আসনের উপনির্বাচনে ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী স.উ.ম আবদুস সামাদ।

বৃহস্পতিবার(২৭ এপ্রিল) বিকেল ৩টার সময় বোয়ালখালী উপজেলার একটি রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ দাবি জানান।

তিনি বলেন, সকাল থেকে ভোটাররা কেন্দ্রে গেলেও বুথে অবাঞ্ছিত লোকের উপস্থিতির কারণে ভোট দিতে পারেননি। বোয়ালখালীর আমুচিয়া, পোপাদিয়া, পূর্ব খিতাপচরে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে মোমবাতি প্রতীকের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সারোয়াতলীতে তাজুল নামের এক ব্যক্তি মোমবাতিতে ভোট দেওয়ায় তাকে মারধরের চেষ্টা চালানো হয়েছে।

সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সংসদীয় এলাকার ভোট কেন্দ্রগুলো পর্যবেক্ষণ করে ৬ দফায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দেওয়া হয়। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তা রিটার্নিং কর্মকর্তা গ্রহণ করেন। কিন্তু কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়নি।

রিটার্নিং কর্মকর্তা এর মাধ্যমে নির্বাচন কার্যক্রমকে কুলষিত করেছেন। সরকারকে বিতর্কিত করেছেন।

আবদুস সামাদ অভিযোগ করে বলেন, ভোটের আগেরদিন রাতে এক প্রার্থীর নির্বাচনী কাজে জড়িত পাতি নেতাদের ভোজন বিলাসে মেতেছিলেন প্রিজাইডিং অফিসারসহ পোলিং অফিসাররা। যা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। এটা আইনের পরিপন্থী। শুধুমাত্র ৫-১০ শতাংশ প্রিজাইডিং অফিসার এতে যোগ দেননি।

তিনি বলেন, নগরীতে ২ থেকে ৩ শতাংশ ভোট পড়েছে এবং বোয়ালখালীতে ৫ থেকে ৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। এর বেশি দেখানো মানে কেরামতি হয়েছে। আমরা কেরামতি চাই না। ভোটের ফলাফল স্থগিত করে পুনরায় নির্বাচন করার দাবি জানাচ্ছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ও উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের নেতৃবৃন্দরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট